বিদেশ থেকে বিকাশে টাকা পাঠানোর নিয়ম

Home » বিকাশ » বিদেশ থেকে বিকাশে টাকা পাঠানোর নিয়ম

আপনার যদি বিদেশ থেকে বিকাশে টাকা পাঠানোর নিয়ম জানা থাকে তাহলে সহজেই বিকাশের মাধ্যমে দেশে টাকা পাঠাতে পারবেন। মধ্যপ্রাচ্য সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে এখন টাকা পাঠানো খুবই সহজ হয়ে গেছে।

এমনকি বিদেশ থেকে যে টাকা পাঠাতে চায় সে চাইলে কয়েক মুহূর্তেই দেশে টাকা পাঠাতে পারবে। এমনকি বেশিরভাগ সময় ভালো এক্সচেঞ্জ রেট পাওয়া যায়।

অনেক সময় দেখা যায় মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে ব্যাংকগুলো অনেক দূরে দূরে। মানে তারা যেখানে বসবাস করে বা যেখানে কাজ করে সেখান থেকে ব্যাংকগুলোর দূরত্ব অনেক বেশি।

এখনকার সময়ে বিদেশ থেকে বিকাশে টাকা পাঠানো বৈধ এবং সহজ হয়ে গেছে। বিকাশ অনুমোদিত ব্যাংকের মাধ্যমে মিনিটেই বাড়িতে টাকা পাঠাতে পারবেন। তাই জেনে নিন বিদেশ থেকে বিকাশে টাকা পাঠানোর নিয়ম সম্পর্কে। আর টাককা পাঠান মিনিটেই

তাই তারা বাড়িতে তাদের পরিবারের কাছে টাকা পাঠানোর জন্য বিকাশ ব্যবহার করে থাকে।

এখন একটা গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন সেটা হল বিকাশ তো শুধু বাংলাদেশে চলে। দেশের বাইরে অন্য কোন দেশে বিকাশ ব্যবহার করা যায় না।

  • তাহলে কিভাবে বিদেশ থেকে বিকাশে টাকা পাঠানো হয়?
  • কিংবা বিদেশ থেকে বিকাশে টাকা পাঠানোর নিয়ম কি?

তাই আমরা আজকে আমাদের আলোচনা শুরু করব

  • কিভাবে বিদেশ থেকে বিকাশের মাধ্যমে টাকা পাঠানো হয়ে থাকে?
  • বিদেশ থেকে বিকাশের মাধ্যমে টাকা পাঠানোর সুবিধা কি কি?
  • আদৌ বিকাশের মাধ্যমে টাকা পাঠানো যুক্তি সঙ্গত কিনা?

বিকাশ কি?

বিকাশ মূলত একটি মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস কোম্পানির নাম। মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস হলো মোবাইলের মাধ্যমে ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনা করা।

যেমনঃ

  1. টাকা পাঠানো
  2. অন্য অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা রিসিভ করা
  3. কেনাকাটা সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পেমেন্ট করা পেমেন্ট করা
  4. বিভিন্ন বিল পে করা
  5. মোবাইল রিচার্জ করা
  6. অ্যাড মানি
  7. সেভিংস
  8. লোন নেয়া
  9. বিকাশ টু ব্যাংক
  10. রেমিটেন্স
  11. এডুকেশন ফি
  12. মাইক্রো ফাইনান্স
  13. ডোনেশন
  14. ইন্সুরেন্স

এখানে উল্লেখ করা সকল সেবা মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস বিকাশ প্রদান করে আসছে।

এমনকি বাংলাদেশের যতগুলো মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস আছে তাদের মধ্যে বিকাশ সবচেয়ে জনপ্রিয়।

তাই আজই ডাউনলোড করুন বিকাশ মোবাইল অ্যাপ। এবং উপভোগ করুন আকর্ষণীয় সব অফার এবং পুরস্কার!

বিকাশে টাকা পাঠায় কিভাবে

আপনি যদি বিকাশে টাকা পাঠাতে চান তাহলে যাকে টাকা পাঠাবেন তারও একটি বিকাশ একাউন্ট থাকতে হবে। এবং আপনি যত টাকা পাঠাতে চান তার সমপরিমাণ টাকা (+ চার্জ সহ) আপনার একাউন্টে থাকতে হবে।

  • বিকাশে টাকা দেখার নিয়ম

সেজন্য আগে আপনার একটা বিকাশ একাউন্ট থাকতে হবে। যদি আপনার বিকাশ একাউন্ট না থাকে তাহলে বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম জেনে নিন।

বিকাশে টাকা পাঠানোর জন্য প্রথমে আপনার বিকাশ একাউন্টে লগইন করতে হবে।

এরপর,

  1. সেন্ড মানে তে ক্লিক করুন
  2. যে নাম্বারে টাকা পাঠাতে চান সে নাম্বার লিখুন
  3. যত টাকা পাঠাতে চান তত টাকা উল্লেখ করুন
  4. আপনার বিকাশ একাউন্টের পিন কোড দিন
  5. নিচের দিকের বিকাশ আইকনে ট্যাপ করে ধরে রাখুন।

এভাবে আপনি এক বিকাশ একাউন্ট থেকে অন্য বিকাশ একাউন্টে টাকা পাঠাতে পারবেন।

জেনে রাখা ভালোঃ বিকাশ প্রিয় নাম্বার ছাড়া অন্য যেকোন নাম্বারে সেন্ড মানি করলে প্রতি লেনদেনে ৫ টাকা চার্জ করবে।

এটা হল বাংলাদেশের মধ্যে যেকোনো একটি বিকাশ একাউন্ট থেকে অন্য বিকাশ একাউন্টে টাকা পাঠানোর নিয়ম।

এই নিয়ম ফলো করে আপনি বিদেশ থেকে দেশে টাকা পাঠাতে পারবেন না।

আপনি যদি বিদেশ থেকে বিকাশের মাধ্যমে দেশে টাকা পাঠাতে চান তাহলে আপনাকে অন্য একটি সিস্টেমের মধ্যে দিয়ে যেতে হবে।

বিদেশ থেকে বিকাশে টাকা পাঠানোর নিয়ম

কেউ যখন বিদেশ থেকে বিকাশে টাকা পাঠাতে চায় তখন সে সরাসরি বিকাশ অ্যাপ কিংবা বিকাশ কোন সার্ভিস ব্যবহার করে টাকা পাঠাতে পারবে না।

কারণ আমি আগেই বলেছি যে বিকাশ শুধুমাত্র বাংলাদেশের জন্য মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস।

এটা কোন আন্তর্জাতিক সেবা নয়। মানে বিকাশ আন্তর্জাতিক লেনদেন করে না।

তাহলে আপনার প্রশ্ন হতে পারে অনেকে বিদেশ থেকে বিকাশের মাধ্যমে টাকা পাঠায়, তাহলে তারা কিভাবে টাকা পাঠায়?

তারা আসলে সরাসরি বিকাশের মাধ্যমে টাকা পাঠাতে পারে না। তবে সেখানে কিছু মানুষজন আছে যারা একটা ভিন্ন উপায়ে বিকাশের ব্যবসা করে থাকে।

যেটা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ এবং অবৈধ!

আচ্ছা যাই হোক আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করেছি কিভাবে বিদেশ থেকে বিকাশ ব্যবহার করে বাংলাদেশে টাকা পাঠাতে হয়।

  • যিনি বিদেশ থেকে বিকাশে টাকা পাঠাবেন তাকে একটা এজেন্ট খুঁজতে হবে।

এখানে বলতে কিছু বিকাশ এর পরিষেবা প্রধানকারী ব্যবসায়িক রয়েছে।

যেমনঃ যারা বলে যে তারা আপনার টাকা বিকাশের মাধ্যমে দেশে পাঠাতে পারবে। আপনি যদি তাদের হাতে টাকা দেন তাহলে তারা সেই টাকা দেশে আপনার পরিবারের বিকাশ একাউন্টে পাঠিয়ে দিবে।

এখানে আপনাকে আগে বুঝতে হবে যে তারা কিভাবে এই টাকা দেশে পাঠায়।

বিদেশে থেকে কিভাবে বিকাশের মাধ্যমে টাকা পাঠানো হয়?

কেউ একজন যখন বলে যে তারা আপনার টাকা বিদেশ থেকে দেশে পাঠাতে পারবে তখন তারা দেশীয় কোন বিকাশ এজেন্টের সাথে চুক্তিতে থাকে।

  • একটু পরিষ্কারভাবে বলতে গেলে যে আপনার টাকা বিদেশ থেকে দেশে পাঠাবে সে প্রথমে আপনার হাত থেকে এই টাকাটা নেয়। এবং আপনি দেশে যার কাছে টাকা পাঠাতে চান তার নাম্বারও তারা নেয়
  • তারপর তারা দেশে কোন বিকাশ এজেন্টকে আপনার দেওয়া নাম্বারে এবং আপনার দেওয়ার টাকার পরিমান উল্লেখ করে পাঠিয়ে দিতে বলা হয়।
  • এতে করে ওই এজেন্টটি আপনার দেশের যে বিকাশ নম্বর দিয়েছেন সে বিকাশ নাম্বারে টাকা পাঠিয়ে দেয়।

তাহলে ব্যাপারটি হলো কি? দেশীয় বিকাশ এজেন্ট এবং দেশীয় বিকাশ নাম্বারে টাকা পাঠানো হয়।

অর্থাৎ আপনার লেনদেনকৃত সকল টাকা দেশেই লেনদেন হয়ে থাকে।

কিন্তু যে বিদেশে আপনাদের আপনার কাছ থেকে টাকা নিয়েছে সে এভাবে অনেক জনের কাছ থেকে টাকাগুলো নেয়।

তারপর যখন অনেক টাকা হয় তখন সে ব্যাংকের মাধ্যমে দেশে এজেন্ট গুলোর কাছে পাঠিয়ে দেয়।

এতে করে বিদেশি ওই লোকের অনেক টাকা লাভ হয়। যেমন সে একসাথে অনেকগুলো টাকা পাঠালে অনেকগুলো টাকার উপর নির্দিষ্ট আছে সে হারে সে বাড়তি টাকা পাবে।

এভাবে মূলত বিদেশের অনেক লোকই এই কাজগুলো করে থাকে।

এবং অনেকেই সেই লোকগুলোর হাতে টাকা দিলে তারা দেশীয় এজেন্টদের সাথে চুক্তি করে এবং দেশীয় এজেন্টরা আপনার পরিবারের বিকাশ একাউন্টে টাকা পাঠিয়ে দেয়।

এতক্ষন আপনাদের সাথে যে বিষয় নিয়ে কথা বলেছি সেটা হচ্ছে থার্ডপার্টির মাধ্যমে বিকাশে বিদেশ থেকে দেশে টাকা পাঠানোর নিয়ম।

বৈধ উপায়ে বিকাশে বিদেশ থেকে টাকা পাঠানোর নিয়ম

এখন থেকে যে কেউ চাইলে বৈধভাবে বিকাশের মাধ্যমে বিদেশ থেকে দেশে টাকা পাঠাতে পারবে।

চলুন আমরা জেনে নেই বিদেশ থেকে বিকাশে টাকা পাঠানোর নিয়ম গুলো কি কিঃ

  • প্রথমে বিকাশ অনুমোদিত ব্যাংকের যে কোনো ব্রাঞ্চ বা এজেন্ট এর নিকট যেতে হবে

এখানে বিকাশ অনুমোদিত ব্যাংক বলতে কিছু কিছু ব্যাংক আছে যেগুলোর সাথে বিকাশ চুক্তিবদ্ধ।

মানে ওই নির্দিষ্ট ব্যাংক গুলোর শাখার মাধ্যমে বিদেশ থেকে যে কেউ বিকাশের মাধ্যমে দেশে টাকা পাঠাতে পারবে।

সোজা কথা বলতে গেলে কেউ যদি বিদেশ থেকে বিকাশ ব্যবহার করে দেশে টাকা পাঠাতে চায় তাহলে বিকাশের অনুমোদিত ব্যাংকগুলোর নিকট যেতে হবে।

  • যে ব্যক্তির নিকট আপনি দেশে টাকা পাঠাবেন সেই ব্যক্তির নাম এবং মোবাইল নম্বর সঠিকভাবে দিতে হবে

ধরুন আপনি বাড়িতে টাকা পাঠাবেন। এখন আপনি যার কাছে টাকা পাঠাবেন ব্যাংকে গেলে যখন যখন জিজ্ঞেস করবে কার কাছে টাকা পাঠাবেন তখন জার্মান নিকট আপনি টাকা পাঠাবেন তার নাম এবং মোবাইল নম্বর দিতে হবে।

  • আপনি বাড়িতে যত টাকা পাঠাতে চান তত টাকা পেমেন্ট দিয়ে দিন

ধরুন আপনি বাড়িতে বিশ হাজার টাকা পাঠাতে চাচ্ছেন। এখন ব্যাংকে তথ্য দেওয়ার পর আপনি দেশের ২০ হাজার টাকার পরিমান বিদেশী রিয়াল দিয়ে দিবেন।

কত রিয়াল কত টাকা বা আজকের টাকার রেট কত সেটা আপনি যখন ব্যাংকে যাবেন তখন তারা আপনাকে এই তথ্যগুলো দিবে।

এভাবে আপনি খুব সহজে বিদেশ থেকে বিকাশ ব্যবহার করে দেশে টাকা পাঠাতে পারবেন।

আরও বিস্তারিত তথ্যের জন্য সাথেই থাকুন আমরা পরবর্তীতে আপডেটে আরও তথ্য সংযুক্ত করব

বিদেশ থেকে বিকাশে টাকা পাঠানো নিয়ে কিছু প্রশ্নঃ

কোন কোন দেশে বিকাশ আছে

বৈধভাবে বিকাশের সকল কার্যক্রম শুধুমাত্র বাংলাদেশে পরিচালিত হয়

বিদেশ থেকে সর্বোচ্চ কত টাকা পাঠানো যায়

বিকাশ থেকে প্রতিদিন একটি লেনদেনের মাধ্যমে সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত পাঠানো যাবে।

বিদেশ থেকে টাকা পাঠানোর খরচ

এখন পর্যন্ত বিকাশ অনুমোদিত ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে বিকাশে টাকা পাঠালে তেমন কোনো খরচ নেই।

বিদেশ থেকে টাকা পাঠানোর নিয়ম কোনগুলো

বিদেশ থেকে ব্যাংক এবং বিকাশ দুইটার মাধ্যমে টাকা পাঠানো যায়। তবে বিকাশে টাকা পাঠাতে চাইলে বিকাশ অনুমোদিত ব্যাংকগুলোর শাখায় যেতে হবে।

শেষ কথাঃ

এখানে আমি যেভাবে বিদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠানোর নিয়ম উল্লেখ করেছি আপনি সেভাবে ফলো করলে খুব সহজে বিকাশের মাধ্যমে দেশে টাকা পাঠাতে পারবেন।

আর আপনার যে কোন সমস্যা কিংবা এই বিকাশ সম্পর্কিত কোন তথ্য জানার থাকলে আপনি কমেন্ট করে জানিয়ে দিন। আজকের এই পোস্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ!

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Scroll to Top